Header Border

ঢাকা, মঙ্গলবার, ১৮ই জানুয়ারি, ২০২২ ইং | ৪ঠা মাঘ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ (শীতকাল) ২৩.৯৬°সে

ইয়ুথ বাংলা আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসব স্বার্থক হয়েছে : মুনা চৌধুরী

গতকাল রাজধানীর উত্তরায় বিশেষ সম্মাননা প্রদান ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের মাধ্যমে শেষ হলো ইয়ুথ বাংলা আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসব। ইয়ুথ বাংলা কালচারাল ফাউন্ডেশনের উদ্যোগে আয়োজিত উৎসবের এ প্রতিদিন বিকেল ৩টা থেকে রাত ৯টায় পর্যন্ত চলেছিল সপ্তাহব্যাপী।

উৎসব পরিচালক গাজী রাকায়েত জানান, বঙ্গবন্ধু কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে নিয়ে নির্মিত প্রামাণ্য চলচ্চিত্র হাসিনা ‘এ ডটার্স টেল’-এর মাধ্যমে শুরু হয় উদ্বোধনী দিনের প্রদর্শনী। এছাড়াও দেশি-বিদেশি তিনটি স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র ও গাজী রাকায়েত পরিচালিত ‘গোর’-চলচ্চিত্রটি প্রদর্শিত হয়েছে।

তিনি বলেন, “বাংলাদেশে আজ আরেকটি আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসব শুরু হল। বিশ্বের যত চলচ্চিত্র উৎসব আছে সেগুলোর মাঝে গুরুত্ব অর্জন করবে এ উৎসব এবং নিয়মিত চলবে এটাই আমাদের প্রত্যয়। বাংলাদেশের দর্শকরা বিশ্বের নানা চলচ্চিত্র দেখার সুযোগ যেমনি পাবেন তেমনি বিশ্বের বিভিন্ন দেশ থেকে আগত নির্মাতারাও বাংলাদেশ সম্পর্কে জানবেন। বাংলাদেশের জন্য গৌরবের আরেকটি জানালা খুলল এ উৎসবের মাধ্যমে।”

আয়োজক প্রতিষ্ঠানের প্রধান পৃষ্ঠপোষক সীমা হামিদ উৎসবের সম্মাননা প্রদান ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান উৎসবের সূচনা করেন। ইয়ুথ বাংলা কালচারাল ফাউন্ডেশন এর প্রধান পৃষ্ঠপোষক সীমা হামিদ জানান; ইয়ুথ বাংলা কালচারাল ফাউন্ডেশন এর উদ্যোগে আয়োজিত এ চলচ্চিত্র উৎসব স্বার্থক হয়েছে। এ উৎসবটি দর্শক লুফে নিয়েছে৷ আগামীতে আমরা বাংলাদেশের প্রতিটি জেলা ও উপজেলায় ইয়ুথ বাংলা কালচারাল ফাউন্ডেশন এর উদ্যোগে আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসবের আয়োজন করব। “

ভারত, ইরান, জার্মানি, নেপালসহ বিভিন্ন দেশের ১৪টি পূর্ণদৈর্ঘ্য এবং ২২টি স্বল্পদৈর্ঘ্য সিনেমা প্রদর্শিত হয়েছে এ উৎসবে। যার মধ্যে ৫টি সিনেমা করছে প্রতিযোগিতা। ৬টি বিভাগে পুরস্কার দেয়া হয়েছে গতকাল। জনপ্রিয় কিংবদন্তি দুইজন অভিয়নশিল্পী দিলারা জামান ও শর্মিলী আহমেদকে ইয়ুথ বাংলা কালচারাল ফাউন্ডেশন এর উদ্যোগে ১ লাখ টাকা করে দুই জনকে ২ লাখ টাকাসহ ; ক্রেজ দিয়ে আজীবন সম্মাননায় ভূষিত করেছেন। তারা দুজনই ইয়ুথ বাংলা কালচারাল ফাউন্ডেশন এর প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেছেন। এছাড়া সেরা অভিনেত্রী হিসেবে পুরস্কৃত হয়েছেন মডেল ও অভিনেত্রী দিলরুবা দোয়েল৷
ইয়ুথ বাংলা কালচারাল ফাউন্ডেশন এর সম্মানিত প্রেসিডেন্ট মুনা চৌধুরী জানান ; আমাদের অনুষ্ঠানটি স্বার্থক হয়েছে। ইয়ুথ বাংলা কালচারাল ফাউন্ডেশন এর প্রতিটি সদস্যদের ধন্যবাদ জানাচ্ছি।। সকলের সম্মিলিত প্রচেষ্টায় আমরা দর্শকদের ভালো কিছু উপহার দিতে পেরেছি এটাই মূখ্য বিষয় । ” এছাড়া ফ্লাই ফারুকের কোরিওগ্রাফিতে সাঞ্জু জন- নমিরা আহমেদের পারফরম্যান্স ; সাথে ছিল মন্দিরা চক্রবর্তীর অসাধারণ পারফর্মেন্স যা দর্শকদের বাড়তি আনন্দ দিয়েছে। এছাড়া আলিফ -মাটির নাচের পারফর্মেন্সও মুগ্ধতা ছড়িয়েছে।

আপনার মতামত লিখুন :

আরও পড়ুন

শুরু হলো বাংলাদেশ ইউরোপীয় ইউনিয়ন চলচ্চিত্র উৎসব
কান চলচ্চিত্র উৎসবে প্রথমবার বাংলাদেশি চলচ্চিত্র

আরও খবর